লতিফ সিদ্দিকীকে গ্রেফতারের দাবিতে আজ বিক্ষোভ : হেফাজতকে বাগে আনতে প্রাশাসনের দৌঁড়ঝাপ, দফায় দফায় বৈঠক

অরাজনীতিক সংগঠন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের নেতাদের বাগে আনতে প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা দৌঁড়ঝাপ শুরু করেছেন। মহানবী (সা.), হজ ও তাবলিগ জামায়াত নিয়ে কটূক্তিকারী সাবেক মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল লতিফ সিদ্দিকীকে কারাগার থেকে মুক্তি দেয়ার প্রতিবাদ ও তাকে ফের গ্রেফতারের দাবিতে দলটি আজ দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচি দিলে প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা হেফাজতের নেতাদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করেছেন।
হেফাজতে ইসলামের আমিরের প্রেস সচিব মাওলানা মুনির আহমদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, গত দুদিনে পর পর দুই দফা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা হেফাজত আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন।
বুধবার বিকেল ৩টায় হেফাজত আমিরের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের এডিশনাল এসপি নাঈমুল হাসান, এএসপি রবীউল ইসলাম এবং হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ইসমাঈল।
কর্মকর্তারা কুশল বিনিময় শেষে আবদুল লতিফ সিদ্দিকী ইস্যুতে মাঠ পর্যায়ে কোনো কর্মসূচি না দিতে হেফাজত আমিরকে অনুরোধ জানান। জবাবে তিনি অবিলম্বে লতিফ সিদ্দিকীকে গ্রেপ্তার করে বিচারের মুখোমুখি করার দাবি জানান।
বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার হাফিজ আক্তারের নেতৃত্বে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের এএসপি রবীউল ইসলাম এবং হাটহাজারী থানার ওসি মোহাম্মদ ইসমাঈল হেফাজত আমিরের সঙ্গে বৈঠক করেন।
বৈঠকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা শুক্রবারের বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি স্থগিত করতে হেফাজত আমিরকে অনুরোধ করেন। এসময় পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) শহীদুল হক টেলিফোনে হেফাজত আমিরকে একই অনুরোধ করেন।
হেফাজত আমীর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের কাছে অবিলম্বে লতিফ সিদ্দিকে গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়ে বলেন, ‘একজন অপরাধীকে কোনো বিচার ছাড়া আপনারা কিভাবে ছেড়ে দিলেন?’
তিনি বলেন, ‘আত্মস্বীকৃত মুরতাদ লতিফ সিদ্দিকীকে গ্রেপ্তার করে বিচারের মুখোমুখি করা ছাড়া উলামা-মাশায়েখ ও তৌহিদী জনতা শান্ত হবে না। আমরা কোনো রাজনৈতিক দাবি করছি না। এটা ঈমান-আক্বিদা ও ইসলামের ইজ্জত-সম্মানের প্রশ্ন। এ বিষয়ে বর্তমানে পুরো জাতি একতাবদ্ধ।’
আল্লামা শফী বলেন, ‘একজন অপরাধীকে ছেড়ে দিয়ে পুরো জাতিকে মানসিক আঘাত দিয়ে বিক্ষুব্ধ করে তোলার যৌক্তিকতা থাকতে পারে না। স্বাঘোষিত এই মুরতাদকে গ্রেপ্তার করুন, পরিস্থিতি আপনা-আপনিই শান্ত হয়ে যাবে।’
এক পর্যায়ে পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা আইনশৃঙ্খলার অবনতির আশঙ্কা প্রকাশ করলে তিনি বলেন, ‘হেফাজতে ইসলাম সব সময় আইনশৃঙ্খলা ও শান্তির প্রতি আনুগত্যশীল। আমাদের সকল কর্মসূচি শন্তিপূর্ণভাবেই পালিত হয়ে আসছে।’
হেফাজত আমির শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি বাস্তবায়নে পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন।
প্রসঙ্গত, মহানবী (সা.), হজ ও তাবলিগ জামায়াত নিয়ে কটূক্তিকারী সাবেক মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল লতিফ সিদ্দিকীকে জামিনে মুক্তি দেয়ার প্রতিবাদ এবং তাকে ফের গ্রেপ্তারের দাবিতে শুক্রবার বাদ জুমা সারাদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক দিয়েছে হেফাজতে ইসলাম।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s